এসইও কি এবং কেন করা হয়

SEO Strategy

SEO কাকে বলে এবং কেন SEO গুরুত্বপূর্ণ?

আজকের বিষয়টি হচ্ছে, “ এসইও কি এবং কেন SEO গুরুত্বপূর্ণ ?” বর্তমানে প্রায় সময়ে আমরা প্রতিনিয়তই অনলাইনে যারা নিয়মিত কাজ করি তারা কম বেশি এসইও শব্দটির সঙ্গে পরিচিত। কিন্তু যারা “SEO কি এবং কেন SEO গুরুত্বপূর্ণ?” এই বিষয়ে একেবারেই নুতুন শুধু তাদের জন্যই আজকের এই আর্টিকেল টি,

SEO শব্দের অর্থ Search Engine Optimization. SEO বা Search Engine Optimization বলতে বোঝায় যে পদ্ধতির মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইট এবং কি-ওয়ার্ড কে র‌্যাংকিং করানো হয় সেই পদ্ধতিকে Search Engine Optimization বা SEO বলে। সহজভাবে বলতে বোঝায়, Search Engine-এ যে পদ্ধতির মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে সার্চ এঞ্জিন-এর প্রথম পৃষ্ঠায় নিয়ে আসার জন্য যে প্রযুক্তিগত কৌশল ব্যবহার করা হয়ে থাকে সেই প্রযুক্তিগত কৌশল কেই বলা হয় SEO বা Search Engine Optimization. অর্থাৎ সার্চ এঞ্জিন-এ অন্তর্ভুক্ত করে সারা বিশ্বের ইন্টারনেট বাবহারকারিদের সম্মুখে আপনার ওয়েবসাইটকে পরিচিত করার পক্রিয়াকেই SEO বা Search Engine Optimization বলে।

SEO বা Search Engine Optimization কত প্রকার ও কি কি?

বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিভিন্ন আর্টিকেল বা প্রত্যেক SEO Expert এসইও–এর প্রকারভেদ সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য উল্লেখ করেছেন। অনেক SEO Expert এসইও–এর প্রকারভেদ সম্পর্কে দ্বিমত পোষণ করে থাকেন। তাহলে চলুন দেখা যাক এসইও কত প্রকার ও কি কি?

কাজের পদ্ধতি অনুসারে এসইও সাধারণত তিন প্রকার। যথাঃ

১. হোয়াইট হ্যাট (White Hat) SEO

২. ব্ল্যাক হ্যাট(Black Hat) SEO এবং

৩. গ্রে হ্যাট (Gray Hat) SEO

# হোয়াইট হ্যাট SEO

SEO বা Search Engine Optimization-এর যে পদ্ধতি কোনো প্রকার স্পামিং না করে সঠিক নিয়ম অনুসারে সার্চ ইঞ্জিন গুলতে কি-ওয়ার্ড র‌্যাংক করা হয় তাকে হোয়াইট হ্যাট এসইও বলে।

কাজের উপর ভিত্তি করে হোয়াইট হ্যাট এসইও–কে আবার দুই ভাগে ভাগ করা যায়। যথাঃ

১. অন পেজ (ON Page) SEO এবং

২. অফ পেজ (OFF Page) SEO

  • অন পেজ SEO

একটি ওয়েবসাইটের বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিনে র‌্যাংক করানোর উদ্দেশ্যে অভ্যন্তরীণ যে সব কাজ করা হয় তাকে অন পেজ এসইও বলে।

অন পেজ এসইও কে আবার দুই ভাগে ভাগ করা যায়। যথা:

১. টেকনিক্যাল এসইও (Technical SEO)

২. পেজ অপটিমাইজেশন (Page Optimization)

অন পেজ এসইও এর জন্য যে কাজগুলো করতে হয় সেগুলো হলোঃ-

  • Domain, Domain Name, Domain Address/URL
  • Title, Keyword, Description
  • NO-follow, DO-follow
  • HTML Tag H1, H2 and H3
  • Keyword Research
  • Website Analysis
  • Content Optimization etc.
  • অফ পেজ SEO

যে কোনো ওয়েবসাইটের প্রচার এবং জনপ্রিয়তা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইটে URL Share, Link Building এবং যে প্রচারনা করা হয় তাকে অফ পেজ এসইও বলে।

অফ পেজ এসইও–এর জন্য যে কাজগুলো করতে হয় সেগুলো হলঃ-

  • Web 2.0
  • Blog Commenting
  • Forum Posting
  • Article Submission
  • Social Bookmarking
  • Review Submission
  • PDF Submission
  • Video Submission
  • Image Submission
  • Directory Submission
  • Guest Post
  • Email Marketing

# ব্ল্যাক হ্যাট SEO

যে পদ্ধতিতে সার্চ এঞ্জিন গুলোকে বোকা বানিয়ে কোনো কোনো পেজ কে র‌্যাংক করা হয় তাকে ব্ল্যাক হ্যাট SEO বলে।

ব্ল্যাক হ্যাট এসইওএর জন্য কিছু পদ্ধতি দেওয়া হলোঃ-

  • Doorway Page
  • Keyword Stuffing
  • Invisible Article
  • Duplicate Content
  • Paid Backlink

# গ্রে হ্যাট SEO

ব্ল্যাক হ্যাট এসইও এবং হোয়াইট হ্যাট এসইওএর সংমিশ্রিত প্রক্রিয়াকেই বল হয় গ্রে হ্যাট এসইও।

ট্রাফিক বা ভিসিটরের উপর ভিত্তি করে Search Engine Optimization কে দুই ভাগে ভাগ করা যায়। যথাঃ

—  অরগানিক (Organic) SEO এবং

—  নন-অরগানিক (Nonorganic) SEO

  • অরগানিক SEO

বৈধ পদ্ধতিতে অরগানিক ট্রাফিক বা ভিসিটরকে ওয়েবসাইটে নিয়ে আসার প্রক্রিয়াকেই অরগানিক এসইও বলে। অন পেজ এসইও এবং অফ পেজ এসইও টাই হচ্ছে অরগানিক এসইও ।

  • পেইড SEO

নন-অরগানিক বা পেইড এসইও খুব দ্রুত আপনার ওয়েবসাইটকে র‌্যাংক পাওয়ার জন্য টাকা দিয়ে ট্রাফিক কিনে আনার একটি পদ্ধতি।

কেন SEO গুরুত্বপূর্ণ?

আমরা এতক্ষণ জানলাম এসইও কি এবং কত প্রকার ও কি কি? চলুন এবার জেনে আসি কেন এটি এত গুরুত্বপূর্ণ?

একটি ওয়েবসাইট এর জন্য এসইও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এমন কি ওয়েবসাইট এর জন্য এটি একটি অপরিহার্য বিষয়। আমরাজানি, প্রচারেই প্রসার। এসইও হচ্ছে ইন্টারনেটে প্রচারের সবচেয়ে উৎকৃষ্ট মাধ্যম। Search Engine Optimization কে আমরা প্রচারের প্রধান মাধ্যমও বলতে পারি। মনেকরুন, আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়েব ডিজাইন বা কম্পিউটার সম্পর্কিত অনেক কাজ করতে পারেন। এ কথা শুধুমাত্র আপনার বন্ধু বা নিকত আত্মীয় এবং আপনার সাথে যারা চলা ফেরা করে শুধু তারাই জানেন। মনেকরুন, আপনি যে কাজ জানেন তা সবাই কে জানাবেন এর জন্য আপনাকে প্রচার করতে হবে। আপনি বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে আপনার প্রচারণা চালাতে পারেন। আপনি লিফলেট, পোষ্টার, ব্যানার এমন কি টেলিভিসনে বিজ্ঞাপণের মাধ্যমে আপনি আপনার প্রচারনা চালাতে পারেন। এর ফলে আপনি হয়ত আপনার আশেপাশে এবং এবং খুব বেশি হলে নিজের দেশে প্রচার করলেন। কিন্তু আপনি এই মাধ্যম গুলোর সাহায্যে কোনোভাবেই ইন্টারনেটে প্রচার করতে পারবেন না। বর্তমান যুগ তথ্য এবং প্রযুক্তির যুগ। বর্তমান যুগে যদি আপনি নিজেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রচার করতে না পারেন তাহলে আপনি নিজেকে বিশ্বের সামনে উপস্থাপন করতে পারবেন না। নিজেকে উপস্থাপন করতে না পারলে আপনার যোগ্যতা আপনার কর্ম দক্ষতা উপস্থপন করতে পারবেন না। যার পরিপ্রেক্ষিতে আপনি ডিজিটাল যুগের এই বিশ্বে আড়ালেই থেকে গেলেন। যার ফলে আপনার যোগ্যতা এবং আপনার কর্ম দক্ষতা আড়ালেই থেকে যাবে। আপনি খুব ভাল গ্রাফিক্স ডিজাইনার বা ওয়েব ডিজাইনার যাই হন না কেন আপনি যদি ইন্টারনেট জগতে নিজেকে উপস্থাপন করতে না পারেন তাহলে আপনি আপনার ক্যারিয়ার ঠিকভাবে গড়তে পারবেন না। নিজেকে বিশ্বের সামনে খুব ভালভাবে উপস্থাপন করার জন্য Search Engine Optimization খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

Search Engine Optimization নিজের জন্য যতটা গুরুত্বপূর্ণ ঠিক ততটাই একটি প্রতিষ্ঠান এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ। একটি প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য প্রতিষ্ঠানকে আর উন্নত করা এবং প্রতিষ্ঠানের সেবা কে সবার কাছে পৌঁছে দেয়া। একটি প্রতিষ্ঠানেরএমন লক্ষ্য পূরণের জন্য প্রয়োজনীয় কাজকে Search Engine Optimization অনেক সহজ করে দিয়েছে। একটি প্রতিষ্ঠান খুব সহজেই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত নিজস্ব একটি ওয়েবসাইট খুলে নিজ প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য এবং তাদের সেবা সম্পর্কিত তথ্য অথবা তাদের পণ্য সম্পর্কিত তথ্য খুব মার্জিত ভাবে উপস্থাপন করে Search Engine Optimization এর মাধ্যমে খুব সহজেই সার্চ এঞ্জিনএর প্রথম পাতায় নিজেদের ওয়েবসাইটকে র‌্যাংক করানোর মাধ্যমে খুব সহজেই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত ট্রাফিক অথবা ভিজিটর নিজেরদের ওয়েবসাইটে পেতে পারেন। এর ফলে সেই প্রতিষ্ঠানটি খুব সহজেই ভাল ব্যবসা ও বাণিজ্য করতে পারবে অন্যান্য প্রতিস্থানের থেকে। এর জন্য Search Engine Optimization এত গুরুত্বপূর্ণ।

আপনি অবাক হবেন যে Search Engine Optimization এর প্রভাব প্রতিটা পেশায় রয়েছে। আপনি ডাক্তার বলেন, ইঞ্জিনিয়ার বলেন, প্রকৌশলী বলেন, ব্যবসায়ী বলেন, শিক্ষক বলেন এছাড়াও সব ধরনের পেশায় এর প্রভাব রয়েছে। আপনি একজন ডাক্তার নিজের জনপ্রিয়তা এবং পরিচিতি বাড়াতে চান আপনি খুব সহজেই Search Engine Optimization এর মাধ্যমে নিজের জনপ্রিয়তা এবং পরিচিতি বাড়াতে পারবেন। এরকম প্রত্যেক পেশাতেই আপনি Search Engine Optimization এর মাধ্যমে নিজের জনপ্রিয়তা এবং পরিচিতি বাড়াতে পারবেন যা আপনার ক্যারিয়ার গঠনে কিনবা আপনার প্রতিষ্ঠানের ভবিষ্যৎ উন্নতির জন্য পর্যাপ্ত সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

Share this Article on
Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on reddit
Reddit
Share on pinterest
Pinterest
Share on tumblr
Tumblr
Share on pocket
Pocket

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *